কারা অধিদপ্তর গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৩rd জানুয়ারি ২০২১

সিটিজেন চার্টার

কারা বিভাগের Citizen Charter

সিটিজেন চার্টার (২য় প্রজন্ম)

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার

কারা অধিদপ্তর

৩০/৩ উমেশ দত্ত রোড, বকশিবাজার, ঢাকা।

www.prison.gov.bd

সেবা প্রদান প্রতিশ্রুতিঃ (Citizen’s Charter)

১।       ভিশন ও মিশন

ভিশনঃ ‘রাখিব নিরাপদ দেখাব আলোর পথ’।

মিশনঃ  বন্দিদের নিরাপদ আটক নিশ্চিত করা, কারাগারের কঠোর নিরাপত্তা ও বন্দিদের মাঝে শৃঙ্খলা বজায় রাখা, বন্দিদের সাথে মানবিক আচরণ করা, যথাযথভাবে তাদের বাসস্থান, খাদ্য, চিকিৎসা এবং আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব ও আইনজীবিদের সাথে সাক্ষাৎ নিশ্চিত করা এবং একজন সুনাগরিক হিসেবে সমাজে পুনর্বাসন করার লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় প্রেষণা ও প্রশিক্ষণ প্রদান করা।

ক্রঃ নং

সেবার নাম

সেবা প্রদান পদ্ধতি

প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও প্রাপ্তিস্থান

সেবামূল্য

সেবা প্রদানের সময়সীমা

দায়িত্বপ্রাপ্ত  কর্মকর্তা (নাম, পদবি, ফোন ও ই-মেইল)

ক. বন্দি সংক্রান্ত প্রদত্ত সেবা সমূহ

১.

তথ্য সরবরাহ

কারা মহাপরিদর্শক বরাবরে আবেদন দাখিল সাপেক্ষে কারাবন্দি বা কারা ব্যবস্থাপনা সম্পর্কিত তথ্য, উপাত্ত ও পরিসংখ্যান সরবরাহ করা হয়। প্রতি কার্যদিবসে এ সংক্রান্ত আবেদন সরাসরি বা ডাকযোগে অথবা ই-মেইলে প্রেরণ করা যায়।

তথ্য অধিকার (তথ্য প্রাপ্তি সংক্রান্ত) বিধিমালা-২০০৯ এ নির্দেশিত ফরমে আবেদন করতে হবে।   

বিনামূল্যে; যে সব তথ্য সরবরাহে সরকারি অর্থ খরচ হয় সে ক্ষেত্রে নির্ধারিত অর্থ প্রদান করতে হয় ।

আবেদনপত্র দাখিলের পর সর্বোচ্চ ১-১৫ দিন

কারা উপ-মহাপরিদর্শক, সদর দপ্তর

 

২.

বিশেষ রেয়াত মঞ্জুর

কারা  বন্দিদের কারাগারে আচার-আচরণ, কাজের পরিমান ইত্যাদির উপর ভিত্তি করে জেলকোড এ নির্ধারিত সময় পর পর কারা মহাপরিদর্শক  এর বরাবর বন্দিদের  বিশেষ রেয়াত মঞ্জুরের জন্য নির্ধারিত ফরমে সুপারিশ প্রেরণ করে থাকেন।

কারা কর্তৃপক্ষই প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পূরণ করে প্রেরণ করেন।      

বিনামূল্যে           

আবেদনপত্র দাখিলের পর সর্বোচ্চ ১-১৫ দিন।

সংশ্লিষ্ট সহকারী কারা মহাপরিদর্শক

 

৩.

বন্দি স্থানান্তর

মামলা সংক্রান্ত, প্রশাসনিক বা অবস্থানের কারণে বন্দিদের এক কারাগার হতে অন্য কারাগারে বদলি/স্থানান্তর করা হয়। বন্দি, তার আত্মীয়  অথবা কারাগার হতে বদলির আবেদন পাওয়ার পর এ সংক্রান্ত বিষয়ে সিদ্ধান্ত প্রদান করা হয়।

বন্দি কর্তৃক কারা কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে নির্ধারিত ফরমে আবেদন অথবা বন্দির আত্মীয়-স্বজন কর্তৃক নির্ধারিত ফরমে/ সাদা কাগজে আবেদন করতে হবে।   

বিনামূল্যে

আবেদনপত্র দাখিলের পর সর্বোচ্চ ১-১৫ দিন

সংশ্লিষ্ট সহকারী কারা মহাপরিদর্শক

৪.

বন্দির চিকিৎসা সেবা

অসুস্থ বন্দিদের কারা হাসপাতাল/ বাহিরে বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় অনুমোদন প্রদান করা হয়।

কারা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নির্ধারিত ফরমে আবেদন অথবা বন্দির আত্মীয়-স্বজন কর্তৃক নির্ধারিত ফরমে/ সাদা কাগজে আবেদন করতে হবে।   

বিনামূল্যে

তাৎক্ষণিক/ আবেদনপত্র দাখিলের পর সর্বোচ্চ ১-১৫ দিন

সংশ্লিষ্ট সহকারী কারা মহাপরিদর্শক

৫.

বন্দি পুনর্বাসন ও কল্যাণ

কারাগারে বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত বন্দিদের মুক্তির পর সমাজে পুনর্বাসনের লক্ষ্যে কর্মসংস্থান খুঁজে পেতে সহায়তা প্রদান করা হয় অর্থাৎ সমাজসেবা/যুব উন্নয়ন/অন্যান্য সরকারি/বেসরকারি  প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে প্রত্যক্ষ/পরোক্ষ  সহায়তা প্রদান করা হয়। তাছাড়া মুক্তিপ্রাপ্ত/বৃদ্ধ/ দুস্থ ব্যক্তিদের ভরণ পোষণের কেউ না থাকলে বয়স্ক পুনর্বাসন কেন্দ্রে ভরণ পোষণের বন্দোবস্ত করা হয়।

বন্দি বা তার আত্মীয় পরিজন কর্তৃক নির্ধারিত ফরমে বা সাদা কাগজে আবেদন করতে হবে।

 

 

 

 

বিনামূল্যে

আবেদনপত্র দাখিলের পর সর্বোচ্চ ১-১৫ দিন

সংশ্লিষ্ট সহকারী কারা মহাপরিদর্শক

খ. প্রশাসন সম্পর্কিত প্রদত্ত সেবা সমূহ

১.

ব্যবসায়িক লাইসেন্স প্রদান ও নবায়ন  

কারাগার সমূহে পণ্য ও সেবা সরবরাহের নিমিত্তে প্রতি বছর নতুন নতুন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে কারা ঠিকাদারী লাইসেন্স প্রদান/ নবায়ন করা হয়।

১। নির্ধারিত ফরম পূরণ

২। ছবি

৩। ভ্যাট সনদ

৪। আয়কর সনদ

৫।জাতীয় পরিচয় পত্রের ছায়ালিপি

৬। নাগরিক সনদের ছায়ালিপি

১। নতুন লাইসেন্স ফি-------টাকা

২। নবায়ন ফি----টাকা

আবেদনপত্র দাখিলের পর সর্বোচ্চ ০১ মাস

সংশ্লিষ্ট সহকারী কারা মহাপরিদর্শক

 

২.

পণ্য ও সেবা ক্রয়

প্রতি অর্থ বছরে কারাগারসমূহের জন্য কারা বাজেট হতে দরপত্রের মাধ্যমে পণ্য ও সেবা ক্রয় করা হয়। এসব পণ্য ও সেবার মধ্যে রয়েছে- বন্দি ও স্টাফদের জন্য রেশন সামগ্রী, ঔষধ ও চিকিৎসা সামগ্রী, ইউনিফর্ম সামগ্রী বিবিধ উপকরণ ইত্যাদি। দরপত্র পত্রিকায় প্রকাশের পর পিপিআর এর বিধিমালার আলোকে কারা ঠিকাদার ও অন্যান্য যোগ্য প্রতিষ্ঠানসমূহ এ দরপত্রে অংশগ্রহণ করতে পারেন।

পিপিআর ও বিজ্ঞপ্তি  অনুযায়ী কাগজ পত্র দাখিল করতে হবে ।

দরপত্রের শর্ত মোতাবেক

পিপিআর অনুযায়ী নির্ধারিত সময়ের মধ্যে

সংশ্লিষ্ট সহকারী কারা মহাপরিদর্শক

৩.

নিয়োগ  

কারা অধিদপ্তর নিয়োগ বিধিমালা অনুযায়ী বিভিন্ন পদে সময়ে সময়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ও উন্মুক্ত পাবলিক পরীক্ষার মাধ্যমে জনবল নিয়োগ করা হয়।

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির শর্ত মোতাবেক প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র দাখিল / নির্বাচন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নিয়োগ করা।

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির বর্ণনামতে

চূড়ান্তভাবে উত্তীর্ণ প্রার্থীদের পুলিশ ভেরিফিকেশন ও স্বাস্থ্য পরীক্ষার সম্পন্নের পর সর্বোচ্চ ০৩ মাস

কারা মহাপরিদর্শক

৪.

বদলি/ পদায়ন

সাধারণত জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অনুশাসন অনুযায়ী প্রতি ০৩ বছর/ক্ষেত্রে ভেদে ভিন্নতা রয়েছে । কর্মকর্তা কর্মচারীদের এক কর্মস্থল হতে অন্য কর্মস্থলে বদলি/ পদায়ন  করা হয়। বিশেষ প্রয়োজন বা প্রশাসনের স্বার্থে যেকোন সময় বদলি করা হয়। তবে কর্মকর্তা কর্মচারীগণ পারিবারিক বা ব্যক্তিগত প্রয়োজনে বদলির আবেদন দাখিল করতে পারেন। এরূপ আবেদন প্রাপ্তির পর যাচাই বাছাই সাপেক্ষে পরিস্থিতি ও প্রয়োজন বিবেচনায় বদলীর সিদ্ধান্ত প্রদান করা হয়।

নির্ধারিত ফরমে, যথাযথ প্রক্রিয়ায় উপর্যুক্ত কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আবেদন পত্র দাখিল করতে হবে।   

বিনামূল্যে

আবেদন প্রাপ্তির পর সর্বোচ্চ ০১ মাস

কারা মহাপরিদর্শক

 

৫.

বিভিন্ন প্রকার ছুটি মঞ্জুর

কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দেশে বিদেশে উন্নত প্রশিক্ষণ গ্রহণ, পড়াশোনা, লিয়েন, মিশন, বিদেশ ভ্রমণ, চিকিৎসা, প্রশাসনিক  প্রয়োজনে আবেদনের প্রেক্ষিতে ছুটি মঞ্জুর করা হয়।

নির্ধারিত ফরমে/ সাদা কাগজে, যথাযথ প্রক্রিয়ায় উপর্যুক্ত কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আবেদন পত্র দাখিল করতে হবে।   

বিনামূল্যে

আবেদন প্রাপ্তির পর সর্বোচ্চ ০১ মাস

কারা মহাপরিদর্শক

 

৬.

শান্তিরক্ষী মিশনে গমন

কারা কর্মকর্তা কর্মচারীগণ জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী মিশনে গমনের জন্য আবেদন করতে পারেন। কেবলমাত্র জাতিসংঘ এ ক্ষেত্রে জনবল চাইলে আবেদন করার সুযোগ রয়েছে। আবেদনকারীগণকে জাতিসংঘ কর্তৃক নির্ধারিত শর্ত পূরণ সাপেক্ষে নির্বাচনী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের সুযোগ পাবেন।

নির্ধারিত ফরমে আবেদন ও ফরমে/ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখিত কাগজপত্রাদি দাখিল করতে হবে।   

কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নির্ধারিত ফি

জাতিসংঘ কর্তৃক ধার্য সময়ের মধ্যে

কারা মহাপরিদর্শক

৭.

বিভাগীয়                      মামলার আপিল নিষ্পত্তি

বিভাগীয় মামলায় প্রদত্ত সিন্ধান্তে সংক্ষুদ্ধ কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ কারা মহাপরিদর্শক বরাররে আপিল করতে পারেন। আপিলের বিষয়বস্তু পর্যালোচনা করে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত প্রদান করা হয়।

নির্ধারিত ফরমে/ সাদা কাগজে, যথাযথ প্রক্রিয়ায় উপযক্ত কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আবেদন পত্র দাখিল করতে হবে।

 

বিনামূল্যে

আবেদন প্রাপ্তির পর সর্বোচ্চ ০১ মাস

কারা মহাপরিদর্শক

৮.

চিকিৎসা সহায়তা প্রদান

কারা কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ অসুস্থতাজনিত কারণে আর্থিক সহায়তার আবেদন করলে কারা স্বাস্থ্য নিরাপত্তা স্কিম হতে নীতিমালা অনুযায়ী  চিকিৎসার জন্য আর্থিক অনুদান প্রদান করা হয়।

১। নির্ধারিত ফরমে/ সাদা কাগজে, যথাযথ প্রক্রিয়ায় উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আবেদন পত্র দাখিল

২। চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র

৩। চিকিৎসার জন্য ব্যয়িত অর্থের রশিদ

 

বিনামূল্যে

আবেদন প্রাপ্তির পর সর্বোচ্চ ০১ মাস

কারা মহাপরিদর্শক

৯.

কল্যাণমূলক সেবা

অবসর গমনকারী কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং আর্থিকভাবে অসচ্ছল কর্মচারীদের কারা কর্মচারী পরিবার নিরাপত্তা প্রকল্প হতে আর্থিক সহায়তা বা অনুদান প্রদান করা হয়।

নির্ধারিত ফরমে/ সাদা কাগজে, যথাযথ প্রক্রিয়ায় উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আবেদন পত্র দাখিল করতে হবে।      

 

বিনামূল্যে

আবেদন প্রাপ্তির পর সর্বোচ্চ ০১ মাস

কারা মহাপরিদর্শক

 

 

১০.

জেল ক্রীড়া দলে অন্তর্ভূক্তি

বাংলাদেশ জেল ক্রীড়া দল জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বিভিন্ন ইভেন্টে খেলা-ধূলায় অংশগ্রহণ করে আসছে। কাবাডি, ভলিবল, এ্যাথলেটিক্স, সাইক্লিং, ভারোত্তোলনসহ অন্যান্য খেলায় চৌকস পেশাদার সার্টিফিকেট প্রাপ্ত খেলায়াড়গণ বাংলাদেশ জেল ক্রীড়া দলের হয়ে খেলতে চাইলে আবেদন করতে পারেন। ট্রায়ালে উত্তীর্ণ খেলোয়াড়দেরকে চুক্তির আওতায় এনে বাংলাদেশ জেল ক্রীড়া  দলের হয়ে খেলার সুযোগ প্রদান করা হয়।

 

১। আবেদনপত্র

২। ছবি

৩। ফিটনেস সার্টিফিকেট

৪। খেলোয়াড়ি সার্টিফিকেট

আবেদন ফি ৫০০/- টাকা

আবেদন প্রাপ্তির পর সর্বোচ্চ ০১ মাস      

স্পোর্টস অর্গানাইজার, বাংলাদেশ জেল ক্রীড়া দল

১১.

ডরমিটরি সেবা

কারা কর্মকর্তা ও তাদের আত্মীয় পরিজন, বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি সংস্থার উর্দ্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ আবেদনের প্রক্ষিতে নির্ধারিত ফি জমা দিয়ে কারা অফিসার্স ডরমিটরি অবস্থান করতে পারেন।

১। নির্ধারিত ফরমে/ সাদা কাগজে আবেদন

২। পরিচয় পত্রের ছায়ালিপি

৩। ছবি  

নীতিমালার আলোকে অবস্থান ফি গ্রহণ এবং প্রতিদিন খাবার ও অন্যান্য সুবিধার জন্য আলাদা ফি প্রযোজ্য

তাৎক্ষণিক       ( আসন খালি থাকা সাপেক্ষে)

সভাপতি,

কারা অফিসার্স ডরমিটরি

 

১২.

কারা কনভেনশন সেন্টার বরাদ্দ করণ

বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের নানাবিধ কর্মসূচি আয়োজনের নিমিত্ত আবেদনের প্রেক্ষিতে নির্ধারিত ফি জমাদানের মাধ্যমে কারা কনভেনশেন সেন্টার বরাদ্দ প্রদান করা হয়।

 

নির্ধারিত ফরমে আবেদন ও ফরমে উল্লেখিত কাগজ-পত্রাদি দাখিল করতে হবে।

নীতিমালার আলোকে

তাৎক্ষণিক      (খালি থাকা সাপেক্ষে)

সভাপতি, কারা কনভেনশন সেন্টার

১৩.

কারাগার পরিদর্শন

কোন সরকারি-বেসরকারি সংস্থা, আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কারাগার পরিদর্শক করতে চাইলে সচিব, সুরক্ষা সেবা বিভাগ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কে সম্বোধন পূর্বক কারা অধিদপ্তরে আবেদন করতে হয়। আবেদন প্রাপ্তির পর যাচাই-বাছাই সাপেক্ষে এ বিষয়ে অনুমোদন প্রদান করা হয়।

পরিদর্শনের দিন, তারিখ, লক্ষ্য, উদ্দেশ্য, পরিদর্শনকারীগণের তথ্য-উপাত্ত সন্নিবেশ করতঃ আবেদন করতে হবে।

বিনামূল্যে           

আবেদন দাখিলের সময় হতে ১-১৫ দিন

সচিব/ কারা মহাপরিদর্শক

 

১৪.

শিক্ষা ও গবেষণা

থিসিস, গবেষণা ও অন্যান্য শিক্ষা সংক্রান্ত কাজে কারাভ্যন্তরে কাজের জন্য অনুমোদন প্রদান করা হয়। তবে এক্ষেতে কারা মহাপরিদর্শক অথবা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় হতে অনুমোদন গ্রহণ করতে হয়।         

 

--

বিনামূল্যে

আবেদন দাখিলের সময় হতে ১-১৫ দিন

সচিব/ কারা মহাপরিদর্শক

১৫.

সাক্ষাৎকার/

মতামত/ অভিযোগ গ্রহণ

আবেদনের মাধ্যমে অথবা সরাসরি হাজিরা

লিখিত আবেদন/ সরাসরি সাক্ষাৎকার

বিনামূল্যে

তাৎক্ষণিক

কারা মহাপরিদর্শক

 

 

সিটিজেন চার্টার (২য় প্রজন্ম)

গণপ্রজাতস্ত্রী বাংলাদেশ সরকার

-------কেন্দ্রীয়/ জেলা কারাগার

ই-মেইলঃ

সেবা প্রদান প্রতিশ্রুতি (Citizen’s Charter)

১।         ভিশন ও মিশন

ভিশনঃ ‘‘রাখিব নিরাপদ, দেখাব আলোর পথ’’।

মিশনঃ  বন্দিদের নিরাপদ আটক নিশ্চিত করা, কারাগারের কঠোর নিরাপত্তা ও বন্দিদের মাঝে শৃঙ্খলা বজায় রাখা, বন্দিদের সাথে মানবিক আচরণ করা, যথাযথভাবে তাদের বাসস্থান, খাদ্য, চিকিৎসা এবং আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব ও আইনজীবিদের সাথে সাক্ষাৎ নিশ্চিত করা এবং একজন সুনাগরিক হিসেবে সমাজে পুনর্বাসন করার লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় প্রেষণা ও প্রশিক্ষণ প্রদান  করা।

২.       প্রতিশ্রুতি সেবাসমূহঃ

ক্রঃ নং

সেবার নাম

সেবা প্রদান পদ্ধতি

প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও প্রাপ্তিস্থান

সেবামূল্য

সেবা প্রদানের সময়সীমা

দায়িত্বপ্রাপ্ত  কর্মকর্তা (নাম, পদবি, ফোন ও ই-মেইল)

স্ব স্ব কারাগার কর্তৃক পূরণীয়

১.

বন্দির আত্মীয়-স্বজন ও বন্ধু-বান্ধবের সাথে সাক্ষাতের ব্যবস্থা করণ;

(ক) সাধারণ হাজতী বন্দি

সংশ্লিষ্ট কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার/জেল সুপার বরাবর সরাসরি আবেদনপত্র দাখিলের পর সাক্ষাতের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। প্রতি ১৫ (পনের) দিন অন্তর সাক্ষাতের সুযোগ রয়েছে এবং একসাথে সর্বোচ্চ ৫(পাঁচ) জন সাক্ষাত করতে পারেন।

কারা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রদত্ত নির্ধারিত ফরমে আবেদন দাখিল

বিনামূল্য

আবেদনপত্র দাখিলের পর সর্বোচ্চ ৩ ঘণ্টা

ডেপুটি জেলার

(ভর্তি ও মুক্তি শাখা)

 

খ) সাধারণ কয়েদী ও ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত বন্দি

সংশ্লিষ্ট কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার/জেল সুপার বরাবর সরাসরি আবেদনপত্র দাখিলের পর সাক্ষাতের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। প্রতি ১ (এক) মাস অন্তর সাক্ষাতের সুযোগ রয়েছে এবং এক সাথে সর্বোচ্চ ৫(পাঁচ) জন সাক্ষাত করতে পারেন।           

নির্ধারিত ফরমে আবেদনপত্র        

বিনামূল্য

আবেদনপত্র দাখিলের পর সর্বোচ্চ ৩ ঘণ্টা

ডেপুটি জেলার

(ভর্তি ও মুক্তি শাখা)

 

(গ) ডিভিশন প্রাপ্ত বন্দি

সংশ্লিষ্ট কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার/জেল সুপার বরাবর সরাসরি আবেদনপত্র দাখিলের পর সাক্ষাতের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। প্রতি ১৫ (পনের) দিন অন্তর সাক্ষাতের সুযোগ রয়েছে এবং একসাথে সর্বোচ্চ ৫(পাঁচ) জন সাক্ষাত করতে পারেন।           

১। নির্ধারিত ফরমে আবেদনপত্র।

২। প্রত্যক সাক্ষাত প্রার্থীর এক কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি।

৩। জাতীয় পবিচয়পত্রের ফটোকপি।

৪। সাক্ষাত প্রার্থীদের মোবাইল নম্বর।

 

বিনামূল্য

আবেদনপত্র দাখিলের পর সর্বোচ্চ ৩ ঘণ্টা

ডেপুটি জেলার

(ভর্তি ও মুক্তি শাখা)

 

 

(ঘ) জঙ্গী, টপটেরর ও অন্যান্য স্পর্শকাতর বন্দী

সংশ্লিষ্ট কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার/জেল সুপার বরাবর সরাসরি আবেদনপত্র দাখিলের পর সাক্ষাতের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। প্রতি ১৫ (পনের) দিন অন্তর সাক্ষাতের সুযোগ রয়েছে এবং একসাথে সর্বোচ্চ ৫(পাঁচ) জন সাক্ষাত করতে পারেন।

১। নির্ধারিত ফরমে আবেদনপত্র।

২। প্রত্যক সাক্ষাত প্রার্থীর এক কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি।

৩। জাতীয় পবিচয়পত্রের ফটোকপি।

৪। সাক্ষাত প্রার্থীদের মোবাইল নম্বর।

বিনামূল্য

আবেদনপত্র দাখিলের পর সর্বোচ্চ ৩ ঘণ্টা

ডেপুটি জেলার

(ভর্তি ও মুক্তি শাখা)

 

(ঙ) ডিটেন্যু ও নিরাপদ হেফাজতী বন্দী

সংশ্লিষ্ট জেলার জেলা ম্যাজিস্ট্রেট/আদালতের অনুমোদনক্রমে সংশ্লিষ্ট কারাগারের সিনিয়ল জেল সুপার/জেল সুপার বরাবর সরাসরি আবেদনপত্র দাখিলের পর সাক্ষাতের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। প্রতি ১৫ (পনের) দিন অন্তর সাক্ষাতের সুযোগ রয়েছে এবং একসাথে সর্বোচ্চ ৫(পাঁচ) জন সাক্ষাত করতে পারেন।

১। সংশ্লিষ্ট জেলা ম্যাজিস্ট্রেট /আদালতের অনুমোদনপত্র

২। নির্ধাধিত ফরমে আবেদনপত্র।

বিনামূল্য

আবেদনপত্র দাখিলের পর সর্বোচ্চ ৩ ঘণ্টা

ডেপুটি জেলার

(ভর্তি ও মুক্তি শাখা)

 

(চ)  বন্দির আইন জীবির সাথে সাক্ষাতের ব্যবস্থা করণ ;

সংশ্লিষ্ট কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার/জেল সুপার যৌক্তিক কারণে যে কোন সময়ের ব্যবধানে আইনজীবির সাথে সাক্ষাতের অনুমতি দিতে পারেন।

নির্ধারিত ফরমে আবেদনপত্র।

 

বিনামূল্য

আবেদনপত্র দাখিলের পর সর্বোচ্চ ৩ ঘণ্টা

ডেপুটি জেলার

(ভর্তি ও মুক্তি শাখা)

 

২.

বন্দিদের খাবারের ব্যবস্থা করণ ;

আদালত হতে আগত বন্দীদের শ্রেণী বিন্যাস করতঃ বন্দীদের ধরণ অনুযায়ী নির্ধারিত স্কেলে বন্দির খাবারের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

---

বিনামূল্য

প্রতিদিন

জেলার

৩.

বন্দিদের পোশাকের ব্যবস্থা করণ ;

আদালত হতে আগত বন্দিদের শ্রেণী বিন্যাস করতঃ সশ্রম কয়েদী /ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত বন্দিদের জন্য কারাগারের নির্ধারিত পোশাকের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। কোন হাজতী/বিনাশ্রম সাজাপ্রাপ্ত বন্দি পোশাকের স্বল্পতা থাকলে স্থানীয় ব্যবস্থাপনায় তাদের জন্য পোশাকের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

---

বিনামূল্য

সর্বোচ্চ ৩০ মিনিট

জেলার

৪.

বন্দিদের যথাযথ আবাসনের ব্যবস্থা করণ ;

আদালত হতে কারাগারে আগত বন্দিদের শ্রেণীবিন্যাস করতঃ বন্দির ধরণ অনুযায়ী ওয়ার্ড/সেলে বন্দির আবাসনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

---

বিনামূল্য

বন্দী কারাগারে আসার পর সর্বোচ্চ ২ ঘণ্টা

জেলার

 

৫.

বন্দিদের প্রয়োজনীয় মালামাল সরবরাহ করণ ;

দৈনন্দিন প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি যেমন-কম্বল, থালা-বাটি,সাবান ইত্যাদি সরকারি খরচে বন্দিদের নিকট সরবরাহ করা হয়।

---

বিনামূল্য

বন্দী কারাগারে আসার পর সর্বোচ্চ ২ ঘণ্টা

জেলার

 

৬.

বন্দিদের চিকিৎসা প্রদান ;

কারাগারে আগত নতুন বন্দিদের আসার সাথে সাথে স্বাস্থ্য পরীক্ষার মাধ্যমে কোন বন্দি অসুস্থ থাকলে তাকে সাথে সাথে চিকিৎসা প্রদান করা হয় এবং প্রয়োজনে হাসপাতালে প্রেরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। ওয়ার্ড/ সেলে অবস্থানরত কোন বন্দি অসুস্থতাবোধ করলে তাকে তাৎক্ষণিকভাবে যথাযথ চিকিৎসা প্রদান করা হয় এবং প্রয়োজনে হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

---

বিনামূল্য

তাৎক্ষণিক/

 

সর্বোচ্চ ২০ মিনিট            সহকারী সার্জন, কারা হাসপাতাল

৭.

বন্দিদের আদালতে হাজিরা নিশ্চিতকরণ ;

বন্দির আদালতে হাজিরার ধার্য তারিখের পূর্বেই বন্দিকে তার হাজিরার দিন তারিখ সম্পর্কে অবহিত করা হয় এবং নির্ধারিত হাজিরার তারিখে বন্দি আদালতে হাজিরের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

আদালত হতে প্রাপ্ত ওয়ারেন্ট/পি ডব্লিউ/ সি ডব্লিউ

বিনামূল্য

---

জেলার

সহযোগীতায়-

ডেপুটি জেলার

(ভর্তি ও মুক্তি শাখা)

৮.

বন্দিদের মূল্যবান জিনিসপত্র সংরক্ষণ ;

আদালতে হতে কারাগারে আগত কোন বন্দির কাছে কোন মূল্যবান জিনিসপত্র থাকলে তা জেলারের নিকট সংরক্ষণ করা হয়।

--

---

---

জেলার

 

৯.

বন্দিদের আপীলসহ আইনী সহায়তা প্রদান  ;

বন্দি নিম্ন আদালতের রায়ে দন্ড প্রাপ্ত হলে উচ্চতর আদালতে ব্যক্তিগতভাবে আপিল করতে অসমর্থ বন্দির কারা কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে একবার জেল আপিল করার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। তাছাড়া গরীব অসহায় বন্দি যারা ব্যক্তিগতভাবে আইনজীবি নিয়োগ করতে পারে না তাদের কারা কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে সরকারি আইনী সহায়তা প্যানেল আইনজীবি নিয়োগ প্রাপ্তির ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

নির্ধারিত ফরমে আবেদন

 

বিনামূল্য

বিনামূল্য          জেল কোডে উল্লেখিত সময়ের মধ্যে

 

সিনিয়র জেল সুপার/

জেল সুপার

১০.

কারা ক্যান্টিনের মাধ্যমে বন্দির নিকট মালামাল/ পণ্য প্রদানের ব্যবস্থা করণ ;

বাহির কারা ক্যান্টিন থেকে বন্দীর আত্মীয়-স্বজন মালামাল/পণ্য কিনে বন্দীর নামে কারা অভ্যন্তরে কারা কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে পাঠাতে পারেন। কারাভ্যন্তরের কারা ক্যান্টিন থেকে বন্দি নিজে তার ব্যক্তিগত ক্যাশে (PC)  জমাকৃত টাকার মাধ্যমে প্রয়োজনীয় অনুমোদিত মালামাল/পণ্য ক্রয় করতে পারেন।

পি সি কার্ড

কারা ক্যান্টিন নীতিমালা অনুযায়ী নির্ধারিত মূল্যে

সর্বোচ্চ ২ ঘণ্টা

ক্যান্টিন পরিচালক

১১.

বন্দির ব্যক্তিগত ক্যাশ (পিসি) তে টাকা জমা গ্রহণ 

ভিতর কারা ক্যান্টিন থেকে প্রয়োজনীয় মালামাল/পণ্য ক্রয়ের জন্য বন্দীর আত্মীয়-স্বজন বন্দি পিসিতে টাকা জমা দিতে পারেন। টাকা জমাদানের পর প্রত্যেক জমাদানকারীকে রশিদ প্রদান করা হয় এবং বন্দীর নামে জমাকৃত টাকা বন্দির পিসিতে জমা হয়।

নির্ধারিত ফরমে আবেদন

 

বিনামূল্যে

সর্বোচ্চ ৩০ মিনিট

পি সি জমা গ্রহণকারী

১২.

বন্দির ওকালতনামা স্বাক্ষরকরণ ;

বন্দীর ওকালতনামা বাইরে সংরক্ষিত বাক্সে জমা দিতে হয়।

দায়িত্ব প্রাপ্ত ডেপুটি জেলারের কাছে সরাসরি জমা প্রদান করতে হয়। ওকালতনামায় সংশ্লিষ্ট বন্দীর স্বাক্ষর গ্রহণের পর তা আবার ওকালতনামা জমাদানকারীর নিকট ফেরত প্রদান করা হয়।

সংশ্লিষ্ট উকিল এর কাছ থেকে প্রাপ্ত ওকালতনামা      

বিনামূল্য

সর্বোচ্চ ৩ ঘণ্টা

ডেপুটি জেলার

(ভর্তি ও মুক্তি শাখা)

১৩.

বন্দিকে জামিনে মুক্তি/খালাশ প্রদান;

সংশ্লিষ্ট আদালতের মাধ্যমে বন্দীর জামিননামা/মুক্তিনামা আসলে তা যাচাই বাছাই পূর্বক বন্দীকে জামিনে মুক্তি/খালাশ প্রদান করা হয়। প্রতিদিন কারা জামিনে মুক্তি/খালাশ পাবে তা পূর্ব থেকে বাইরে নোটিশ বোর্ডে টাঙিয়ে দেয়া হয়।

সংশ্লিষ্ট আদালতের মাধ্যমে প্রাপ্ত সঠিক জামিননামা/ মুক্তিনামা

বিনামূল্য

সর্বোচ্চ ৫ ঘণ্টা;

তবে জামিননামা সংশোধনের বা সঠিকতা যাচাইয়ের প্রয়োজন হলে বিলম্ব হতে পারে

খালাশ-সিনিয়র জেল সুপার/জেল সুপার

জামিন-জেলার

 

১৪.

বন্দিদের জন্য প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করণ ;

কারা অভ্যন্তরে বন্দির হাতকে কর্মীর হাতে রূপান্তর ও বন্দির কর্মসংস্থানের উদ্দেশ্যে বন্দির আগ্রহ ও দক্ষতা অনুযায়ী কারা অভ্যন্তরে বন্দিকে বিভিন্ন ধরণের বৃত্তি মূলক প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।

---

বিনামূল্য

 

সিনিয়র জেল সুপার/

জেল সুপার

১৫.

বন্দিদের জন্য প্রেষণামূলক, গঠনমূলক ও কল্যাণ ধর্মী কার্যক্রম গ্রহণ ;

বন্দীদের অপরাধ প্রবণতা হতাশা ইত্যাদি দুর করার জন্য ধর্মীয় ও নৈতিক শিক্ষা ও পরামর্শ প্রদান, খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক বিনোদনের ব্যবস্থা  গ্রহণসহ বন্দিদের জন্য বিভিন্ন ধরণের প্রেষণামূলক, গঠনমূলক ও কল্যাণধর্মী কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়।

---

বিনামূল্য

 

সিনিয়র জেল সুপার/

জেল সুপার

১৬.

তথ্য সরবরাহ করণ;

বন্দীর আত্মীয় স্বজন অথবা অন্য কোন ব্যক্তির আবেদনের প্রেক্ষিতে বন্দির সাজা, কারাবাস, কারা ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত তথ্য (যা কারা নিরাপত্তা বিঘ্নিত করবে না) সরবরাহ করা হয়। এক্ষেত্রে তথ্য অধিকার আইন অনুসরন করা হয়।

নির্ধারিত ফরমে/ সাদা কাগজে আবেদন।

বিনামূল্যে; যেসব তথ্য সরবরাহে সরকারি অর্থ খরচ হয় ক্ষেত্রে নির্ধারিত অর্থ প্রদান করতে হয়

১-১৫ দিন

সিনিয়র জেল সুপার/

জেল সুপার

১৭.

কারা পণ্য বিক্রয় ;

কারাভ্যন্তরে বন্দি প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কার্যক্রমের মাধ্যমে উৎপাদিত পণ্য সমূহ জনসাধারণের নিকট নির্ধারিত লাভে বিক্রয় করা হয়।

---

নির্ধারিত মূল্যে

তাৎক্ষণিক (সহজ লভ্যতা সাপেক্ষে)

পরিচালক, কেন্দ্রীয় প্রদর্শনী ও বিক্রয় কেন্দ্র, কাশিমপুর, গাজীপুর/

সকল কেন্দ্রীয় ও জেলা কারাগার

১৮.

উপ-আনুষ্ঠানিক শিক্ষা ;

কারাভ্যন্তরে নিরক্ষর বন্দিদের স্বাক্ষরতা অর্জন ও আলোকিত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে কারা শিক্ষকের মাধ্যমে উপ-আনুষ্ঠানিক শিক্ষা সেবা প্রদান করা হয়।

নির্ধারিত ফরমে আবেদন

বিনামূল্য

বন্দির আবেদনের পরদিন হতে

কারা শিক্ষক

 

১৯.

বোর্ড পরীক্ষায় অংশগ্রহণের ব্যবস্থা করণ ;

কারান্তরীন বন্দিদের মধ্যে যারা এস এস সি বা অন্যান্য বোর্ড বা বিশ্ববিদ্যালয় পরীক্ষায় অংশগ্রহণে ইচ্ছুক তাদের যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমোদন সাপেক্ষে কারাগারে পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ দেয়া হয়।

নির্ধারিত ফরমে আবেদন, আদালত ও যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমোদন।

বিনামূল্য

বোর্ড বা বিশ্ববিদ্যালয় কর্র্তৃক রুটিন অনুযায়ী

জেলার/ ডেপুটি জেলার

 

                                                                                                                                                                                                      

 

    

 


Share with :

Facebook Facebook